ঢাকা ০৫:০৬ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এবার ফিতরার পরিমাণ কত নির্ধারণ হয়েছে

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:২৩:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪
  • / ৩৬ বার পড়া হয়েছে

বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে এবারের ফিতরা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। সকল তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের মুসলিমদেরকে ফিতরা প্রদান করতে হবে। তবে এটি সবার উপর ফরজ না হলেও নির্দিষ্ট কিছু দেখতে বর্গের উপর। এখন এই ফিতরা সম্পর্কে আলোচনা করা হবে আমাদের এই নিউজে।

রমজানের সময় বিভিন্ন ধরনের ইসলামিক কর্মকান্ড থাকলেও এর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ফিতরা। যাদের ওপর ফিতরা ফরজ করে দেওয়া হয়েছে তাদের উপর এ ফিতরা আদায় করতে হবে অবশ্যই। তবে এর উপর ফরজ ওহার নির্দিষ্ট কিছু শর্ত রয়েছে এখন আমরা নিজে থেকে এসেই শর্ত জানবো। তাহলে চলুন এখন আমরা আলোচনার মূল প্রসঙ্গে চলে যাই সরাসরি।

কার উপর ফিতরা ফরজ হয়েছে?

যাদের কাছে সাড়ে সাত তোলা পরিমাণ স্বর্ণ রয়েছে অথবা ৫২ তোলা পর্যন্ত রুপা রয়েছে তাদের ওপর এই ফিতরা খরচ করে দিয়েছেন মহান আল্লাহ তা’আলা। এমনটাই বিভিন্ন হাদিস থেকে এসেছে।

কাদের ফিতরা দিতে হয়?

যে পরিবারে ঈদুল ফিতরের আগে একটি শিশু জন্মগ্রহণ করেছে তার ক্ষেত্রেও আদায় করতে হবে। আর এই ফিতরা দিতে হবে যারা এর নেওয়ার যোগ্য অর্থাৎ গরীব, অসহায় তাদের। আর নির্দিষ্ট সময়ে এই ফিতরা প্রদান করতে হবে।

এবার ফিতরার পরিমাণ কত নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে?

ফিতরার অর্থ নির্ধারণ করে দেওয়া হয় বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্বাচন করে। যেমন ১ কেজি গমের দাম অথবা ১ কেজি আটার দাম ইত্যাদি বিষয়ের উপর নির্ভর করে। আর বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে নির্দিষ্ট একটি অর্থ নির্বাচন করে দেওয়া হয়। এখন আমরা জানবো এই সংস্থা থেকে কত টাকা সর্বনিম্ন অথবা কত টাকা সর্বোচ্চ দিতে পারবেন। সর্বোচ্চর পরিমাণ নির্দিষ্ট না থাকলেও সর্বনিম্ন পরিমাণ নির্দিষ্ট রয়েছে। এবারের সর্বনিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে ১১৫ টাকা। তবে কেউ চাইলে এর থেকে বেশি পরিমাণ প্রদান করতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

এবার ফিতরার পরিমাণ কত নির্ধারণ হয়েছে

আপডেট সময় : ০৬:২৩:৫৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০২৪

বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে এবারের ফিতরা নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। সকল তথ্য অনুযায়ী বাংলাদেশের মুসলিমদেরকে ফিতরা প্রদান করতে হবে। তবে এটি সবার উপর ফরজ না হলেও নির্দিষ্ট কিছু দেখতে বর্গের উপর। এখন এই ফিতরা সম্পর্কে আলোচনা করা হবে আমাদের এই নিউজে।

রমজানের সময় বিভিন্ন ধরনের ইসলামিক কর্মকান্ড থাকলেও এর মধ্যে অন্যতম একটি হচ্ছে ফিতরা। যাদের ওপর ফিতরা ফরজ করে দেওয়া হয়েছে তাদের উপর এ ফিতরা আদায় করতে হবে অবশ্যই। তবে এর উপর ফরজ ওহার নির্দিষ্ট কিছু শর্ত রয়েছে এখন আমরা নিজে থেকে এসেই শর্ত জানবো। তাহলে চলুন এখন আমরা আলোচনার মূল প্রসঙ্গে চলে যাই সরাসরি।

কার উপর ফিতরা ফরজ হয়েছে?

যাদের কাছে সাড়ে সাত তোলা পরিমাণ স্বর্ণ রয়েছে অথবা ৫২ তোলা পর্যন্ত রুপা রয়েছে তাদের ওপর এই ফিতরা খরচ করে দিয়েছেন মহান আল্লাহ তা’আলা। এমনটাই বিভিন্ন হাদিস থেকে এসেছে।

কাদের ফিতরা দিতে হয়?

যে পরিবারে ঈদুল ফিতরের আগে একটি শিশু জন্মগ্রহণ করেছে তার ক্ষেত্রেও আদায় করতে হবে। আর এই ফিতরা দিতে হবে যারা এর নেওয়ার যোগ্য অর্থাৎ গরীব, অসহায় তাদের। আর নির্দিষ্ট সময়ে এই ফিতরা প্রদান করতে হবে।

এবার ফিতরার পরিমাণ কত নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে?

ফিতরার অর্থ নির্ধারণ করে দেওয়া হয় বিভিন্ন বিষয়ের উপর নির্বাচন করে। যেমন ১ কেজি গমের দাম অথবা ১ কেজি আটার দাম ইত্যাদি বিষয়ের উপর নির্ভর করে। আর বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে নির্দিষ্ট একটি অর্থ নির্বাচন করে দেওয়া হয়। এখন আমরা জানবো এই সংস্থা থেকে কত টাকা সর্বনিম্ন অথবা কত টাকা সর্বোচ্চ দিতে পারবেন। সর্বোচ্চর পরিমাণ নির্দিষ্ট না থাকলেও সর্বনিম্ন পরিমাণ নির্দিষ্ট রয়েছে। এবারের সর্বনিম্ন ফিতরা নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে ১১৫ টাকা। তবে কেউ চাইলে এর থেকে বেশি পরিমাণ প্রদান করতে পারে।