ঢাকা ০৫:২৪ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বয়কটের ধাক্কায় ইসরায়েলের সব রেস্তোরাঁ কিনে নিচ্ছে ম্যাকডোনাল্ডস

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:৫৮:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪
  • / ২৫ বার পড়া হয়েছে

ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট

জানুয়ারিতে ফিলিস্তিনে ইসরাইল সেনাদের আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে অ্যালেনিয়াল সেই সেনাদের বিনামূল্যে খাবার প্রদান করা শুরু করে। তাদের এই কর্মকাণ্ডের ফলেই বিশাল এক বয়কটের মুখে পড়ে অ্যালেনিয়াল। এই বয়কট থেকে রেহাই পায়নি ম্যাকডোনাল্ডসও। অ্যালেনিয়ালের সাথে বিজনেস থাকায় ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট এর সম্মুখীন হয়।

আমেরিকার বিখ্যাত ম্যাকডোনাল্ডস ইসরাইলে থাকা তাদের সকল চেইনশপ অ্যালেনিয়াল লিমিটেডের কাছ থেকে পুনরায় কিনে নিচ্ছে। ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কটের কারণেই এমনটি করতে বাধ্য হচ্ছে। বিগত প্রায় ৩০ বছর ধরে অ্যালেনিয়ালই ম্যাকডোনাল্ডসের চেইনশপ গুলো দেখাশোনা করে আসছিল। কিন্তু বয়কটের কারণে তাদের ব্যবসার নিম্নমুখী পতন শুরু হয়। তাই শেষ পর্যন্ত অ্যালেনিয়ালের সাথে পথ চলায় ইতি টানছে তারা। নিজেদের সব চেইনশপ গুলো এখন তারা কিনে নিয়ে নিজেরাই নিয়ন্ত্রণ করবে। মূলত অর্থিকক্ষতি কমিয়ে আনান জন্যই এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা।

গত ৫ এপ্রিল শুক্রবার বিখ্যাত সংবাদ সংস্থা বিবিসি এবং আল-জাজিরার একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যাকডোনাল্ডস অ্যালেনিয়ালের কাছ থেকে ২২৫টি রেস্তোরাঁ কিনে নেওয়ার জন্য চুক্তি সম্পন্ন করেছে। ম্যাকডোনাল্ডস বলেছে ইসরাইল হামাস যুদ্ধ আমাদের ব্যবসাকে আর্থিকভাবে প্রভাবিত করেছে। শুধু ইসরাইল নয়, বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম প্রধান দেশের পাশাপাশি অমুসলিম দেশও যেমন ফ্রান্স, ইন্দোনেশিয়া এবং মালয়েশিয়ায়ও তাদের বিক্রি অনেকটাই কমে গেছে।

ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট

আলজাজিরার আরোএ একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কেবলমাত্র ম্যাকডোনাল্ডসই নয় ইজরাইলি সেনাদের খাবার প্রদান এবং তাদের পক্ষে অবস্থানের জন্য স্টারবাক্সও বয়কটের মুখে পড়েছে। স্টারবাক্সের সিও লক্ষণ নরসিংহ সাংবাদিকদের জানান, আমেরিকাতেও তাদের লেনদেন ও বিক্রি অনেকটা কমে গেছে।

ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কটকে ঘিরে ছোট ছোট আরো কিছু চেইনশপ এবং রেস্তোরাঁ বয়কট করছে মানুষ। যদিও তারা অ্যালেনিয়ালের কাছ থেকে নিজেদের চেইনশপ গুলো নিয়ে পুনরায় ব্যবসা ফিরে পেতে চেষ্টা করছে।

৮ এপ্রিল বিরল সূর্যগ্রহণ

ইসরায়েল হামাস যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের ও মুসলমানরা বেশ কিছু ইসরাইলি পণ্য বর্জন করেছে। সেই সাথে ইসরায়েল ও তার সেনাদের সমর্থন করে সে সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বর্জন করেছেন। ফিলিস্তিনিতে চলমান যুদ্ধের প্রতিবাদস্বরূপ মুসলমানদের পাশাপাশি অন্যান্য ধর্মালম্বী মানুষরাও এই বয়কটে অংশগ্রহণ করছে। ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট তাঁরই একটি অন্যতম প্রতিচ্ছবি। যদিও ম্যাকডোনাল্ডসের সিইও জানিয়েছেন তাদের পৃথিবী জুড়ে চলা প্রায় ৪০ হাজার রেস্তোরাঁর অধিকাংশই মুসলিম দেশে অবস্থিত এবং তাদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

বয়কটের ধাক্কায় ইসরায়েলের সব রেস্তোরাঁ কিনে নিচ্ছে ম্যাকডোনাল্ডস

আপডেট সময় : ০৪:৫৮:২০ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

জানুয়ারিতে ফিলিস্তিনে ইসরাইল সেনাদের আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে অ্যালেনিয়াল সেই সেনাদের বিনামূল্যে খাবার প্রদান করা শুরু করে। তাদের এই কর্মকাণ্ডের ফলেই বিশাল এক বয়কটের মুখে পড়ে অ্যালেনিয়াল। এই বয়কট থেকে রেহাই পায়নি ম্যাকডোনাল্ডসও। অ্যালেনিয়ালের সাথে বিজনেস থাকায় ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট এর সম্মুখীন হয়।

আমেরিকার বিখ্যাত ম্যাকডোনাল্ডস ইসরাইলে থাকা তাদের সকল চেইনশপ অ্যালেনিয়াল লিমিটেডের কাছ থেকে পুনরায় কিনে নিচ্ছে। ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কটের কারণেই এমনটি করতে বাধ্য হচ্ছে। বিগত প্রায় ৩০ বছর ধরে অ্যালেনিয়ালই ম্যাকডোনাল্ডসের চেইনশপ গুলো দেখাশোনা করে আসছিল। কিন্তু বয়কটের কারণে তাদের ব্যবসার নিম্নমুখী পতন শুরু হয়। তাই শেষ পর্যন্ত অ্যালেনিয়ালের সাথে পথ চলায় ইতি টানছে তারা। নিজেদের সব চেইনশপ গুলো এখন তারা কিনে নিয়ে নিজেরাই নিয়ন্ত্রণ করবে। মূলত অর্থিকক্ষতি কমিয়ে আনান জন্যই এমন পদক্ষেপ নিচ্ছে তারা।

গত ৫ এপ্রিল শুক্রবার বিখ্যাত সংবাদ সংস্থা বিবিসি এবং আল-জাজিরার একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যাকডোনাল্ডস অ্যালেনিয়ালের কাছ থেকে ২২৫টি রেস্তোরাঁ কিনে নেওয়ার জন্য চুক্তি সম্পন্ন করেছে। ম্যাকডোনাল্ডস বলেছে ইসরাইল হামাস যুদ্ধ আমাদের ব্যবসাকে আর্থিকভাবে প্রভাবিত করেছে। শুধু ইসরাইল নয়, বিশ্বের অন্যান্য মুসলিম প্রধান দেশের পাশাপাশি অমুসলিম দেশও যেমন ফ্রান্স, ইন্দোনেশিয়া এবং মালয়েশিয়ায়ও তাদের বিক্রি অনেকটাই কমে গেছে।

ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট

আলজাজিরার আরোএ একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কেবলমাত্র ম্যাকডোনাল্ডসই নয় ইজরাইলি সেনাদের খাবার প্রদান এবং তাদের পক্ষে অবস্থানের জন্য স্টারবাক্সও বয়কটের মুখে পড়েছে। স্টারবাক্সের সিও লক্ষণ নরসিংহ সাংবাদিকদের জানান, আমেরিকাতেও তাদের লেনদেন ও বিক্রি অনেকটা কমে গেছে।

ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কটকে ঘিরে ছোট ছোট আরো কিছু চেইনশপ এবং রেস্তোরাঁ বয়কট করছে মানুষ। যদিও তারা অ্যালেনিয়ালের কাছ থেকে নিজেদের চেইনশপ গুলো নিয়ে পুনরায় ব্যবসা ফিরে পেতে চেষ্টা করছে।

৮ এপ্রিল বিরল সূর্যগ্রহণ

ইসরায়েল হামাস যুদ্ধকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের ও মুসলমানরা বেশ কিছু ইসরাইলি পণ্য বর্জন করেছে। সেই সাথে ইসরায়েল ও তার সেনাদের সমর্থন করে সে সকল প্রতিষ্ঠান ও পণ্য বর্জন করেছেন। ফিলিস্তিনিতে চলমান যুদ্ধের প্রতিবাদস্বরূপ মুসলমানদের পাশাপাশি অন্যান্য ধর্মালম্বী মানুষরাও এই বয়কটে অংশগ্রহণ করছে। ম্যাকডোনাল্ডস ইসরায়েল বয়কট তাঁরই একটি অন্যতম প্রতিচ্ছবি। যদিও ম্যাকডোনাল্ডসের সিইও জানিয়েছেন তাদের পৃথিবী জুড়ে চলা প্রায় ৪০ হাজার রেস্তোরাঁর অধিকাংশই মুসলিম দেশে অবস্থিত এবং তাদের দ্বারা নিয়ন্ত্রিত।