ঢাকা ০৪:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এক্সিম নামেই চলবে পদ্মা ব্যাংক

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৫:৫৯:২৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪
  • / ২৯ বার পড়া হয়েছে

এক্সিম নামেই চলবে পদ্মা ব্যাংক

এক্সিম ব্যাংক এবং পদ্মা ব্যাংক একত্রিত হয়ে পদ্মা ব্যাংকের সকল কার্যক্রম পরিচালিত হবে এক্সিম ব্যাংকের নামে। সেই সাথে পদ্মা ব্যাংকের সকল গ্রাহকের দায় পরিশোধ করবে এক্সিম ব্যাংক। তাই চাকরিও হারাবে না কোনো কর্মী। সম্প্রতি দুর্দশাগ্রস্থ পদ্মা ব্যাংককে এক্সিম ব্যাংকের সাথে একীভূত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক অনুষ্ঠানে একটি সমঝোতা স্মারক সই করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদারের উপস্থিতিতে দুই ব্যাংকের এমডি চুক্তিতে সই করেন।
এসময় বাংলাদেশ ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান, সোনালী ব্যাংকের এমডি, পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একদিন ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, পদ্মা ব্যাংকের সাথে একত্রিত হওয়ার ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে কোন চাপ ছিল না। দেশের জনগণ ও অর্থনীতির স্বার্থে আমরাই এটা করেছি। এতে করে দুই ব্যাংকের গ্রাহকরা নিরাপদে থাকবেন।

এক্সিম নামেই চলবে পদ্মা ব্যাংক

তিনি আরো আশ্বাস দেন, পদ্মা ব্যাংকের সকল সমস্যা দূর করে ১ বছরের ভেতরে ভালো স্থানে উঠে আসবে। পদ্মা ব্যাংকের সকল গ্রাহকদের দায়ভার এখন এক্সিম ব্যাংক গ্রহণ করেছে।

২০১৩ সালে যাত্রা শুরু করা “দি ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেড” ২০১৯ সালে নাম বদলে পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড হয়। তার পর থেকে ঋণ জালিয়াতি এবং নানা অনিয়মের কারণে এতে সরকারের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন হয়। তারপর ব্যাংকটিকে রক্ষা করতে রাষ্ট্র মালিকানাধীন রূপালী, জনতা, অগ্রণী, সোনালী ব্যাংক এবং আইসিবির পক্ষ থেকে ৭৭৫ কোটি টাকা মূলধন প্রদান করা হয়।

কিন্তু পদ্মা ব্যাংক খেলাফিদের ঋণ আদায় করতে না পারায় অর্থ সহায়তা দিয়েও মূলধন ক্ষয় বন্ধ করা যায়নি।
তাই এই বিপুল পরিমাণ খেলাফি ঋণের অর্থ আদায় এবং গ্রাহকদের আমানত ফেরত দেওয়ার জন্য ২০২১ সালে পদ্মা ব্যাংকে অন্য যেকোনো ব্যাংকের সাথে একীভূত করার আলোচনা শুরু হয়।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি পদ্মা ব্যাংকে এক্সিম ব্যাংকের সাথে একিভূত করা হয়। এর ফলে পদ্মা ব্যাংক পুনরায় তার সকল সমস্যা কাটিয়ে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সুযোগ পাবে। একিভূত হওয়ার পর থেকে পদ্মা ব্যাংক এক্সিম ব্যাংক নামেই পরিচালিত হবে। আশা করি সরকারের এই মহৎ উদ্যোগের মধ্য দিয়ে অনেক গ্রাহক তাদের দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাবে। অনেক কর্মকর্তা তাদের চাকুরী নিশ্চয়তা পাবে। আর পদ্মা ব্যাংক আরেকটি সুযোগ পেয়েছে সব সমস্যার কাটিয়ে উঠার।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

এক্সিম নামেই চলবে পদ্মা ব্যাংক

আপডেট সময় : ০৫:৫৯:২৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০২৪

এক্সিম ব্যাংক এবং পদ্মা ব্যাংক একত্রিত হয়ে পদ্মা ব্যাংকের সকল কার্যক্রম পরিচালিত হবে এক্সিম ব্যাংকের নামে। সেই সাথে পদ্মা ব্যাংকের সকল গ্রাহকের দায় পরিশোধ করবে এক্সিম ব্যাংক। তাই চাকরিও হারাবে না কোনো কর্মী। সম্প্রতি দুর্দশাগ্রস্থ পদ্মা ব্যাংককে এক্সিম ব্যাংকের সাথে একীভূত করতে বাংলাদেশ ব্যাংকের এক অনুষ্ঠানে একটি সমঝোতা স্মারক সই করেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আবদুর রউফ তালুকদারের উপস্থিতিতে দুই ব্যাংকের এমডি চুক্তিতে সই করেন।
এসময় বাংলাদেশ ব্যাংক অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান, সোনালী ব্যাংকের এমডি, পদ্মা ব্যাংকের চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে একদিন ব্যাংকের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, পদ্মা ব্যাংকের সাথে একত্রিত হওয়ার ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে কোন চাপ ছিল না। দেশের জনগণ ও অর্থনীতির স্বার্থে আমরাই এটা করেছি। এতে করে দুই ব্যাংকের গ্রাহকরা নিরাপদে থাকবেন।

এক্সিম নামেই চলবে পদ্মা ব্যাংক

তিনি আরো আশ্বাস দেন, পদ্মা ব্যাংকের সকল সমস্যা দূর করে ১ বছরের ভেতরে ভালো স্থানে উঠে আসবে। পদ্মা ব্যাংকের সকল গ্রাহকদের দায়ভার এখন এক্সিম ব্যাংক গ্রহণ করেছে।

২০১৩ সালে যাত্রা শুরু করা “দি ফারমার্স ব্যাংক লিমিটেড” ২০১৯ সালে নাম বদলে পদ্মা ব্যাংক লিমিটেড হয়। তার পর থেকে ঋণ জালিয়াতি এবং নানা অনিয়মের কারণে এতে সরকারের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন হয়। তারপর ব্যাংকটিকে রক্ষা করতে রাষ্ট্র মালিকানাধীন রূপালী, জনতা, অগ্রণী, সোনালী ব্যাংক এবং আইসিবির পক্ষ থেকে ৭৭৫ কোটি টাকা মূলধন প্রদান করা হয়।

কিন্তু পদ্মা ব্যাংক খেলাফিদের ঋণ আদায় করতে না পারায় অর্থ সহায়তা দিয়েও মূলধন ক্ষয় বন্ধ করা যায়নি।
তাই এই বিপুল পরিমাণ খেলাফি ঋণের অর্থ আদায় এবং গ্রাহকদের আমানত ফেরত দেওয়ার জন্য ২০২১ সালে পদ্মা ব্যাংকে অন্য যেকোনো ব্যাংকের সাথে একীভূত করার আলোচনা শুরু হয়।

তারই পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি পদ্মা ব্যাংকে এক্সিম ব্যাংকের সাথে একিভূত করা হয়। এর ফলে পদ্মা ব্যাংক পুনরায় তার সকল সমস্যা কাটিয়ে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সুযোগ পাবে। একিভূত হওয়ার পর থেকে পদ্মা ব্যাংক এক্সিম ব্যাংক নামেই পরিচালিত হবে। আশা করি সরকারের এই মহৎ উদ্যোগের মধ্য দিয়ে অনেক গ্রাহক তাদের দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাবে। অনেক কর্মকর্তা তাদের চাকুরী নিশ্চয়তা পাবে। আর পদ্মা ব্যাংক আরেকটি সুযোগ পেয়েছে সব সমস্যার কাটিয়ে উঠার।