ঢাকা ০৫:৫১ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৪:০৩:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪
  • / ২৯ বার পড়া হয়েছে

শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান

আজ ২৯ শে মার্চ সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের শেষ ধাপের পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে সকাল ১১ টা পর্যন্ত এই পরীক্ষার সময় ছিল। অনেকেই হয়তো এখন এই শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান খুঁজছেন। আপনাদের সেই কাঙ্খিত প্রশ্নের সমাধান নিয়েই আমার আজকের লেখাটি।

সরকার সম্প্রতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা গুলো ধাপে ধাপে সম্পন্ন করছেন। এরই লক্ষ্যে দুই ধাপে ৬ টি বিভাগের ৪০ টি জেলায় এই পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আজকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগে তৃতীয় ধাপের পরীক্ষাটি সম্পন্ন হল। এই ধাপে মোট শিক্ষক নিয়োগ করা হবে ৬ হাজার ২০২ জন। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২৯৩ জন।

দুই বিভাগেই কঠোর নিরাপত্তার সহিত পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। কোনরকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেনি। পরীক্ষা কে কেন্দ্র করে সরকার আগে থেকেই কয়েক স্তরের কঠোর নিরাপত্তা জারি করেছিল। তাছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে কোন প্রকার অর্থ লেনদেন বা অনৈতিক উপায়ে চাকরি পাওয়ার পন্থা অবলম্বন করতে নিষেধ করা হয়েছে। কারণ যার মেধা আছে এবং পরীক্ষায় ভালো করবে, তার চাকুরী এমনিতেই হবে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান

শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান টি দেখার আগে আরেকটি বিষয় আপনাদের জানা দরকার। আজ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ এমসিকিউ পদ্ধতিতে সম্পন্ন হয়েছে। এই ধাপে যারা উত্তীর্ণ হবে তাদেরকে পরবর্তি মৌখিক ভাইবার জন্য ডাকা হবে। ভাইবা সম্পন্ন হওয়ার পর মূল ফলাফল ঘোষণা করা হবে। তারপর নির্বাচিত প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, ডোপ টেস্ট জমা দিতে হবে ও পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হবে। এসকল ধাপে প্রতারণার আশ্রয় নিলে কিংবা মিথ্যা তথ্য প্রদান করলে নিয়োগ বাতিল থেকে শুরু করে শাস্তিও হতে পারে।

আবার নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সকল কাগজপত্র প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সাবমিট করতে না পারলে পরবর্তী সময়ে নিয়োগপত্র নাও খেতে পারেন।

পরীক্ষা শেষ করে হয়তো অনেকেই শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধানের জন্য অপেক্ষা করছেন। কতটি ভুল এবং কতটি সঠিক হয়েছে সেটি জানার আগ্রহ শহরে থাকে। সেই আগ্রহের কথা চিন্তা করে আমিও শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান পত্রটি আপনাদের উপস্থাপন করলাম।

আপনারা ইতিমধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধানটি পেয়ে গেছেন। কতটি ভুল বা সঠিক উত্তর হয়েছে সে ব্যাপারে আরেকজনের সাথে তুলনা করে হতাশায় ভুগবেন না। কারণ জেলা ভেদে কাট মার্কস কমবেশি হতে পারে। আর আপনার যদি মনে হয় এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার সম্ভাবনা খুবই কম তাহলে সময় নষ্ট না করে পরবর্তী পরীক্ষার প্রিপারেশনের জন্য মনোযোগ দিন। ইতিমধ্য ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অফিস সহ বেশকিছু সরকারি চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান

আপডেট সময় : ০৪:০৩:০২ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৯ মার্চ ২০২৪

আজ ২৯ শে মার্চ সরকারি প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের শেষ ধাপের পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আজ শুক্রবার সকাল ১০ টা থেকে সকাল ১১ টা পর্যন্ত এই পরীক্ষার সময় ছিল। অনেকেই হয়তো এখন এই শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান খুঁজছেন। আপনাদের সেই কাঙ্খিত প্রশ্নের সমাধান নিয়েই আমার আজকের লেখাটি।

সরকার সম্প্রতি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা গুলো ধাপে ধাপে সম্পন্ন করছেন। এরই লক্ষ্যে দুই ধাপে ৬ টি বিভাগের ৪০ টি জেলায় এই পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। আজকে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগে তৃতীয় ধাপের পরীক্ষাটি সম্পন্ন হল। এই ধাপে মোট শিক্ষক নিয়োগ করা হবে ৬ হাজার ২০২ জন। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩ লাখ ৪৯ হাজার ২৯৩ জন।

দুই বিভাগেই কঠোর নিরাপত্তার সহিত পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে। কোনরকম অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা ঘটেনি। পরীক্ষা কে কেন্দ্র করে সরকার আগে থেকেই কয়েক স্তরের কঠোর নিরাপত্তা জারি করেছিল। তাছাড়া সরকারের পক্ষ থেকে কোন প্রকার অর্থ লেনদেন বা অনৈতিক উপায়ে চাকরি পাওয়ার পন্থা অবলম্বন করতে নিষেধ করা হয়েছে। কারণ যার মেধা আছে এবং পরীক্ষায় ভালো করবে, তার চাকুরী এমনিতেই হবে।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান

শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান টি দেখার আগে আরেকটি বিষয় আপনাদের জানা দরকার। আজ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ এমসিকিউ পদ্ধতিতে সম্পন্ন হয়েছে। এই ধাপে যারা উত্তীর্ণ হবে তাদেরকে পরবর্তি মৌখিক ভাইবার জন্য ডাকা হবে। ভাইবা সম্পন্ন হওয়ার পর মূল ফলাফল ঘোষণা করা হবে। তারপর নির্বাচিত প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, ডোপ টেস্ট জমা দিতে হবে ও পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন হবে। এসকল ধাপে প্রতারণার আশ্রয় নিলে কিংবা মিথ্যা তথ্য প্রদান করলে নিয়োগ বাতিল থেকে শুরু করে শাস্তিও হতে পারে।

আবার নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সকল কাগজপত্র প্রাথমিক শিক্ষা অফিসে সাবমিট করতে না পারলে পরবর্তী সময়ে নিয়োগপত্র নাও খেতে পারেন।

পরীক্ষা শেষ করে হয়তো অনেকেই শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধানের জন্য অপেক্ষা করছেন। কতটি ভুল এবং কতটি সঠিক হয়েছে সেটি জানার আগ্রহ শহরে থাকে। সেই আগ্রহের কথা চিন্তা করে আমিও শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধান পত্রটি আপনাদের উপস্থাপন করলাম।

আপনারা ইতিমধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রশ্ন সমাধানটি পেয়ে গেছেন। কতটি ভুল বা সঠিক উত্তর হয়েছে সে ব্যাপারে আরেকজনের সাথে তুলনা করে হতাশায় ভুগবেন না। কারণ জেলা ভেদে কাট মার্কস কমবেশি হতে পারে। আর আপনার যদি মনে হয় এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হবার সম্ভাবনা খুবই কম তাহলে সময় নষ্ট না করে পরবর্তী পরীক্ষার প্রিপারেশনের জন্য মনোযোগ দিন। ইতিমধ্য ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অফিস সহ বেশকিছু সরকারি চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।